তিরস্কারের পর পুরস্কার! ইয়াবা বিক্রিতে অভিযুক্ত এসপি পেলেন প্রমোশন!

233
অভিযুক্ত এসপি পেলেন প্রমোশন, তিরস্কারের পর পুরস্কার,

নিউজ ডেস্ক : কক্সবাজরে উদ্ধার করা ১০ লাখ পিস ইয়াবা বিক্রি করা হয়েছিল ২০১৭ সালে। পুলিশ সদর দপ্তরের তদন্তে প্রমাণিত হয় ঘটনাটি। অভিযোগ ছিল তখনকার এসপি ডক্টর একেএম ইকবাল হোসেন, ৯ কর্মকর্তা এবং তিন কনস্টেবলের বিরুদ্ধে। কঠোর বিভাগীয় ব্যবস্থা (তিরস্কারের পর পুরস্কার) নেয়া হয় প্রায় সবার বিরুদ্ধে। তবে প্রধান অভিযুক্ত এ কে এম ইকবালকে নামমাত্র শাস্তি হিসেবে তিরস্কার করা হয়। সম্প্রতি তিনি পদোন্নতি (অভিযুক্ত এসপি পেলেন প্রমোশন) পেয়ে অতিরিক্ত ডিআইজি হয়েছেন। এতে বিস্মিত অপরাধ বিশ্লেষকরা। এ ঘটনায় হাইর্কোর্টে রিটকারীও দাবি করছেন ন্যায় বিচার।

 

উল্লেখ্য, ইতিপূর্বে ইয়াবা বিক্রির মতো অপরাধ -এর জন্য কেন বিভাগীয় ব্যবস্থা নিয়েছেন এবং ফৌজদারি দন্ডবিধি মোতাবেক ব্যবস্থা কেন নেয়া হবে না, এমর্মে হাই কোর্টে রিট করা হয়েছে। হাইকোর্ট এব্যপারে নির্দেশনা দিয়ে রুল জারি করেছিল।

 

প্রধান অভিযুক্ত এ কে এম ইকবাল -এর পদোন্নতির (অভিযুক্ত এসপি পেলেন প্রমোশন) ব্যাপারে পুলিশ সদর দপ্তর -এর কোনো বক্তব্য পাওয়া যায়নি। তবে প্রধান অভিযুক্ত এ কে এম ইকবাল গণমাধ্যম কে জানিয়েছেন, পূর্বের অভিযোগের ব্যপারে বিভাগীয় তদন্ত শেষে ব্যবস্থা (তিরস্কারের পর পুরস্কার) নেয়া হয়েছিল এবং সেটা নিষ্পত্তি হয়ে গেছে।

 

পুলিশ পরিচয়ে ঢাবি শিক্ষার্থীকে অপহরণ করলো কে?

পুলিশ পরিচয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীকে অপহরণ করলো কে? এ নিয়ে ঘুম হারাম ঢাকার পুলিশের। গত ২৫ আগস্ট দিনে দুপুরে কল্যাণপুর এলাকা থেকে পুলিশ পরিচয়ে অপহরণ করে, উত্তরার দিয়াবাড়ির নির্জন এলাকায় ফেলে যায় এক দুর্বৃত্ত।

 

শিক্ষার্থীকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত ও নিপীড়ন করে, কেড়ে নেয়া হয় টাকা ও স্বর্ণালঙ্কার। মামলা হলেও এখনো অপরাধী ধরতে পারেনি পুলিশ। তুরাগ থানা পুলিশের মাধ্যমে উদ্ধারের পর অপহরন মামলা করেন ঐ ভোক্তভোগী শিক্ষার্থী। Read more..

Related Post:
ধরাছোঁয়ার বাইরে গাজীপুরের শীর্ষ ইয়াবা ব্যবসায়ী শামীম